কালিহাতীতে গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা

ittefaq
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   |   ৩১ মে, ২০১৬ ইং
টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সকালে নিজ ঘর থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। কালিহাতী উপজেলার সহদেবপুর ইউনিয়নের নিগুইর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গৃহবধূ হলেন ওই গ্রামের সৌদিপ্রবাসী আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী বিলকিস বেগম(৩০)।
কালিহাতী থানার ওসি সাইফুল ইসলাম ফরাজি জানান, আনোয়ার হোসেন আট মাস আগে ওই গ্রামেই একটি নতুন বাড়ি করে সেখানে স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। পরে আনোয়ার হোসেন জীবিকার জন্য সৌদি আরব চলে যান। বিলকিস বেগম ওই নতুন বাড়িতে তার এক ভাগ্নীকে নিয়ে থাকতেন। বিলকিসকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

তথ্যসূত্র:  দৈনিক ইত্তেফাক, ৩১ মে,  ২০১৬

রূপগঞ্জে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

prothom alo
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি | আপডেট: ০২:০৮, মে ৩০, ২০১৬ | প্রিন্ট সংস্করণ
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে লাকি আক্তার (১৮) নামের এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার ভোরে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার রানীপুরা (ইসলামপুর) এলাকা থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকেই স্বামী-শ্বশুরসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছেন।
লাকি আক্তার উপজেলার তাড়াইল এলাকার ইব্রাহীম মিয়ার মেয়ে। Continue reading

চাঁদপুরে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে স্বামী শাশুড়ি

jugantor
চাঁদপুর প্রতিনিধি    |    প্রকাশ : ২৮ মে, ২০১৬ ০০:০০:০০
যৌতুকের জন্য শ্বশুরবাড়ির লোকজন দু’সন্তানের জননী সখিনা বেগমকে (২৭) আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ২০ মে চাঁদপুর শহরের বিষ্ণুদী সৈয়াল বাড়িতে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে ছয় দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে সখিনা বৃহস্পতিবার বিকালে মারা যান। বিকালে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে সখিনার ময়নাতদন্তের পর সন্ধ্যায় গ্রামের বাড়িতে পারিবারিক গোরস্থানে লাশ দাফন করা হয়। এ ঘটনায় সখিনা বেগমের ভাই জয়নাল আবেদীন তপাদার এর পূর্বে ২৫ মে বাদী হয়ে স্বামী বাবুল ছৈয়াল, শাশুড়ি আয়েশা বেগম ও ননদ শারমিন আক্তারকে আসামি করে চাঁদপুর মডেল থানায় এজাহার দাখিল করেন। Continue reading

দুর্বৃত্তের এসিডে ঝলসে গেল স্বামী স্ত্রীর শরীর

ittefaq
ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) সংবাদদাতা২৮ মে, ২০১৬ ইং
উপজেলার ভেলাইন গ্রামে বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২টার দিকে দুর্বৃত্তের ছোড়া এসিডে ঝলসে গেছে স্বামী-স্ত্রীর শরীর। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো মামলা হয়নি।প্রতিবেশীরা জানায়, নুরনবী (৪০) ও তার স্ত্রী আঙ্গুরী বেগম (৩৫) রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে মাটির ঘরের জানালা খুলে শুয়ে পড়েন। মধ্যরাতে দুর্বৃত্তরা জানালা দিয়ে ঘুমন্ত দম্পতির শরীরে পর পর দু’বার এসিড নিক্ষেপ করে। এসময় তাদের চিত্কারে পাশাপাশি বসবাসরত ভাই ও পরিবারের লোকজন ছুটে এসে দেখেন তাদের শরীর ঝলসে গেছে। ঘরের ভেতরে একটি এসিডের বোতলও পাওয়া যায়। ঘোড়াঘাট স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ডাক্তার পার্থ জানান, উন্নত চিকিত্সার জন্য রাতেই তাদের দিনাজপুরে নিয়ে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে । প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে তাদের শরীর এসিড বা এসিড জাতীয় কোনো পদার্থে ঝলসে গেছে।

তথ্যসূত্র:  দৈনিক ইত্তেফাক, ২৮ মে,  ২০১৬

অস্বাভাবিক মৃত্যু

prothom alo
নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ০১:২৩, মে ২৮, ২০১৬ | প্রিন্ট সংস্করণ
ডেমরার শাহনাজ আক্তার (৩০) নামে এক গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। স্বামী-সন্তানসহ সাইনবোর্ড এলাকায় থাকতেন শাহনাজ। ডেমরা থানার ওসি মো. সেলিম বলেন, সন্তানকে মারধর করায় শাহনাজের মা বৃহস্পতিবার রাতে তাঁকে বকাবকি করেন। এতে রাগ করে ঘরে ঢুকে দরজা লাগিয়ে দেন তিনি। পরে ঘরের ভেতর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তথ্যসূত্র: প্রথম আলো, ২৮ মে,  ২০১৬

টঙ্গীতে গৃহবধূর আত্মহনন

kaler kantho
টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি   |  ২৬ মে, ২০১৬ ০০:০০
পারিবারিক কলহের জেরে সালেহা বেগম নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার রাতে টঙ্গীর আরিচপুর মধুমিতা রোড এলাকায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় টঙ্গী মডেল থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। সালেহা মাগুরা সদরের পাড়নান্দুয়ালী গ্রামের মৃত ওয়ালী উল্লাহর মেয়ে। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সালেহা বেগম খুলনার খালিশপুর গ্রামের সহিদুর রহমান বাবুর দ্বিতীয় স্ত্রী। তাঁদের বিয়ের রেজিস্ট্রি এখনো হয়নি। টঙ্গীর আরিচপুর মধুমিতা রোড এলাকার উদয়ন হাউজিংয়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন তাঁরা। দুই বছর পর স্বামীর আগের স্ত্রী ও দুই সন্তান থাকার কথা জানতে পারেন সালেহা। এ নিয়ে প্রায়ই তাঁদের মধ্যে ঝগড়া হতো।

তথ্যসূত্র: কালের কন্ঠ, ২৬ মে,  ২০১৬

‘কিরণমালা’ ও এক নারীর মৃত্যু

prothom alo
লালমনিরহাট প্রতিনিধি | আপডেট: ০১:৫০, মে ২৬, ২০১৬ | প্রিন্ট সংস্করণ
পাশের বাড়িতে টেলিভিশন দেখতে যাওয়ায় স্বামী ও সন্তানের তিরস্কারের কারণে যূথিকা রানী (৪০) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। গত মঙ্গলবার লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের বেলের ভিটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক সূত্র জানায়, ভারতীয় চ্যানেলে প্রচারিত কিরণমালা নামের ধারাবাহিক নাটক দেখার জন্য যূথিকা রানী সোমবার রাত আটটার দিকে প্রতিবেশী গণেশ চন্দ্র রায়ের বাড়িতে যান। সেখানে গিয়ে তাঁর স্বামী শরৎ চন্দ্র রায় (৪৮) রাতের খাবারের বিষয়ে জানতে চান। শুধু আলু ভর্তা ও ভাত রাঁধার কথা জানালে শরৎ বলেন, ‘কিরণমালা দেখার জন্যই বুঝি অন্য কিছু রান্নার সময় হয়নি?’ রাত নয়টার দিকে যূথিকা রানী বাড়ি এলে বড় ছেলে লিটন চন্দ্র রায়ও তাঁকে একই রকম কথা শুনিয়ে ভর্তা-ভাত খাবেন না বলে ঘুমিয়ে পড়েন।
Continue reading